1. ajkerfaridpur2020@gmail.com : Monirul Islam Titu : Monirul Islam Titu
  2. jmitsolution24@gmail.com : support :
  3. titunews@gmail.com : Monirul Islam Titu : Monirul Islam Titu
“রণিকে ফাঁসাতেই পরিকল্পিতভাবে ছাত্রদল নেতা বানানো হয়েছে” - আজকের ফরিদপুর
বুধবার, ০৪ অগাস্ট ২০২১, ০৯:৫৯ পূর্বাহ্ন
নোটিশ বোর্ড :
আজকের ফরিদপুর নিউজ পোর্টালে আপনাদের স্বাগতম । করোনার এই মহামারীকালে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখুন। সচেতনে সুস্থ থাকুন।

“রণিকে ফাঁসাতেই পরিকল্পিতভাবে ছাত্রদল নেতা বানানো হয়েছে”

  • Update Time : শনিবার, ৩ জুলাই, ২০২১
  • ৩৮ জন পঠিত
আজিজুর রহমান দুলাল, আলফাডাঙ্গা :
রায়হান রণিকে ফাঁসাতেই পরিকল্পিতভাবে ছাত্রদল নেতা তকমা লাগিয়ে অপপ্রচার চালানো হয়েছে বলে ফরিদপুরের আলফাডাঙ্গায় সাংবাদিক সম্মেলনে দাবী করা হয়েছে। শনিবার বেলা ১২ টায় আলফাডাঙ্গা প্রেসক্লাবে এ সংবাদ সম্মেলন করেন ওই নেতা।
 সংবাদ সম্মেলনে একটি লিখিত বক্তব্যে মোহাম্মদ রায়হান রনি নিজেকে ছাত্রলীগের একনিষ্ঠ কর্মী দাবি করে বলেন, তিনি বলেন-“আমি দীর্ঘদিন যাবত ছাত্রলীগের রাজনৈতিক মিটিং-মিছিলে রাজপথে সক্রিয় ভাবে থেকেছি।  বিএনপি-জামাতের জ্বালাও পোড়াও রাজনীতি ও হরতালের বিপক্ষে থেকেছি আপোষহীন।“
 মোহাম্মদ রায়হান রনি তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন মিথ্যাচারের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বলেন, নবগঠিত আলফাডাঙ্গা পৌর ছাত্রলীগের কমিটিতে সাংগঠনিক সম্পাদক নির্বাচিত করার পর বারবার একটি কুচক্রি মহল আমাকে ছাত্রদল নেতা বানানোর পায়তারা করছে, যা সম্পূর্ণ উদ্দেশ্য প্রণোদিত এবং মিথ্যাচার মাত্র। কেননা উপযুক্ত কোন প্রমাণ ছাড়া শুধুমাত্র একটি কমিটির কাগজ দেখে আমাকে ছাত্রদল বানানোর অপচেষ্টা চলছে। আমি যদি সত্যিই ছাত্রদল করতাম তাহলে কেন ছাত্রদল এবং বিএনপি নেতৃবৃন্দের সাথে আমার ছবি থাকবে না? আমি দীপ্ত কণ্ঠে বলব, ছাত্রদল আমার কোন সিভি এবং ছবি দেখাতে পারবে না। আমি এই মিথ্যাচারের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।
 তিনি বলেন, সামান্য একটা কাগজের উপর নির্ভর করে আমার ব্যক্তিগত রাজনৈতিক জীবনকে সংকটময় করে তুলবেন না। আর কি কাগজ এবং প্রমাণ আছে সেটা দেখান? ছাত্রদলের সাথে আমার কোন সম্পর্ক নেই এটা মিথ্যা এবং রাজনৈতিক উদ্দেশ্যমূলক আমাকে হেয় করার জন্য।
 তিনি আরও বলেন, সাম্প্রতি এক টুকরো কাগজ আর ফেসবুকে কুচক্রী মহলের নানান তৎপরতা আমার ব্যক্তি জীবন ও রাজনৈতিক জীবনকে করেছে প্রশ্নবিদ্ধ এবং আমাকে ফেলেছে হুমকির মুখে।
 উল্লেখ্য, সদ্য ঘোষিত আলফাডাঙ্গা পৌর ছাত্রলীগের কমিটিতে সাংগঠনিক সম্পাদক পদে পৌর ছাত্রদলের এক নেতার জায়গা হয়েছে বলে অভিযোগ ওঠে। অভিযুক্ত রায়হান রনি নামের ওই নেতা উপজেলা ছাত্রদলের যুগ্ম আহ্বায়ক পদে থেকেই উপজেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক পদ পেয়েছেন বলে দাবি করা হয়।
 রায়হান রনি ফরিদপুরের আলফাডাঙ্গা পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ডে বসবাস করেন।  বর্তমানে পড়াশোনা করছেন যশোর পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটে।  ছাত্রদল ও ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা জানান, প্রায় ছয় মাস আগে গত ২৩ জানুয়ারি জেলা ছাত্রদলের সভাপতি সৈয়দ আদনান হোসেন অনু ও সাধারণ সম্পাদক তানজিমুল হাসান কায়েস স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞিপ্তির মাধ্যমে ২১ সদস্য বিশিষ্ট আলফাডাঙ্গা পৌর ছাত্রদলের একটি আহ্বায়ক কমিটি অনুমোদন দেন। ওই কমিটির একজন আহ্বায়ক, ৯ জন যুগ্ম আহ্বায়ক, একজন সদস্যসচিব এবং বাকি সবাই সদস্য পদ পায়।  ঘোষিত ঐ কমিটির ১ নম্বর যুগ্ম আহ্বায়ক হিসেবে রয়েছে রায়হান রনির নাম।
যা আজ ১৯ জুন ২০২১ শনিবার, বেলা ৩ ঘটিকায় এক জরুরী প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে দলীয় নিয়ম বহির্ভূত কার্যক্রমে জড়িত থাকার অভিযোগে মোঃ রায়হান রণি কে বহিস্কার করে।
এদিকে ১২ জুন আলফাডাঙ্গা পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক ও সাংগঠনিক সম্পাদকের নাম ঘোষণা করে একটি আংশিক কমিটি অনুমোদন দেয় ফরিদপুর জেলা ছাত্রলীগ। ঘোষিত ঐ পৌর কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক হিসেবেও রয়েছে মোহাম্মদ রায়হান রনির নাম।   যা আজ ১৯ জুন ২০২১ শনিবার, বেলা আনুমানিক সাড়ে তিন ঘটিকায় এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে দলীয় নিয়ম শৃঙ্খলা পরিপন্থী কার্যকলাপের অভিযোগে তার সদ্য প্রাপ্ত সাংগঠণিক সম্পাদক পদ হতে অব্যাহতি প্রদান করে।
স্থানীয় ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের বক্তব্য যে, ছাত্রদলের রায়হান রনি ও ছাত্রলীগের মোহাম্মদ রায়হান রনি একই ব্যক্তি কি না তা আমাদের জানা নেই; তবে মোঃ রায়হান রনি দাবী করেন ছাত্রদলের রায়হান রনি ও তিনি একই ব্যক্তি নন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© পদ্মা বাংলা মিডিয়া হাউজের একটি প্রতিষ্ঠান
Design & Developed By JM IT SOLUTION