1. ajkerfaridpur2020@gmail.com : Monirul Islam Titu : Monirul Islam Titu
  2. jmitsolution24@gmail.com : support :
  3. titunews@gmail.com : Monirul Islam Titu : Monirul Islam Titu
“খোলা পাট বীজেই যত আপত্তি” - আজকের ফরিদপুর
মঙ্গলবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:৩৬ অপরাহ্ন
নোটিশ বোর্ড :
আজকের ফরিদপুর নিউজ পোর্টালে আপনাদের স্বাগতম । করোনার এই মহামারীকালে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখুন। সচেতনে সুস্থ থাকুন।

“খোলা পাট বীজেই যত আপত্তি”

  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ১৭ ডিসেম্বর, ২০২০
  • ২৫৫ জন পঠিত

স্টাফ রিপোর্টার :
পাটের মানোন্নয় এবং পাট বীজ উৎপাদনে স্বয়ংসম্পূর্ণ করার লক্ষ্যে কৃষকদের খোলা পাটবীজ ক্রয় না করার আহ্বান জানিয়েছেন বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের সচিব লোকমান হোসেন মিয়া। একই সাথে আগামী তিন বছরের মধ্যে বাংলাদেশ পাটের বীজে স্বয়ং সম্পূর্ণতা পাবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।



আজ বুধবার (১৭ ডিসেম্বর) দুপুরে ফরিদপুর জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে জেলা প্রশাসন ও পাট অধিদপ্তরের আয়োজনে “উন্নত প্রযুক্তি নির্ভর পাট ও পাটবীজ উৎপাদন এবং সম্প্রসারণ প্রকল্পের আওতায়” পাট শিল্পের উন্নয়ন ও বহুমুখিতা নিশ্চিতকরণ বিষয়ক সেমিনারে তিনি প্রধান অতিথির বক্তব্য প্রদান করেন।
ফরিদপুর জেলা প্রশাসক অতুল সরকারের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্যকালে তিনি সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের উদ্দেশ্যে বলেন, বাজারে পাটের খোলা বীজ আসার আগে কৃষকদের ম্যাসেজ দিতে হবে এর নেতিবাচকতা সম্পর্কে। এজন্য কৃষকদের মাঝে পাট সম্পর্কে মোটভেশনাল করা হবে। তিনি বলেন, আমি মনে করি, পাটের জন্মভূমি ও পবিত্রভূমি এই ফরিদপুর, এটা বাস্তব। সুতরাং এই পাটের উন্নয়নের আমাদের বিভিন্ন উদ্যোগমূখী কাজ করতে হবে। পাট উৎপাদনের বিষয়ে কিছু প্রতিবন্ধকতা রয়েছে, সে বিষয়ে পাট মন্ত্রণালয় কৃষকদের নিয়ে প্রশিক্ষণের ব্যবস্থাও করেছেন। পাটের আয়ূস্কাল ১২০ দিন থেকে ৯০ দিন করার জন্য বিশেষজ্ঞদের নিয়ে কার্যকরী পদক্ষেপ নেওয়া হবে এবং পাট ও পাটবীজ উৎপাদনে তাপমাত্রার বিষয়টা নিয়ে বিশেষ বিবেচনা করা হবে। পাশাপাশি বীজে স্বয়ংসম্পন্ন হওয়ার জন্য যা যা দরকার তার জন্য এ্যাকশন কমিটি করা হবে, আশা করি এটা নিয়ে অসুবিধা হবে না। এ সময় তিনি পাটের বড় বড় ব্যবসায়ীদের কার্পেটিং ইন্ডাষ্ট্রি করার জন্য অনুরোধ করেন।



সভাপতিত্বকালে জেলা প্রশাসক অতুল সরকার বলেন, পাটের মানোন্নয়ন করার লক্ষ্যে পাট সম্পর্কে ফরিদপুরে মিউজিয়াম করলে ভালো হবে, এজন্য বড় বড় পাট ব্যবসায়ীদের এর সাথে সংযুক্ত হতে হবে। প্রয়োজনে সেখানে একটি হেল্পডেস্কও করা হবে।
এ সময় আরো বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ তাঁত বোর্ডের চেয়ারম্যান ও অতিরিক্ত সচিব মোঃ শাহ আলম, বিজেএমই এর মোঃ জাহিদ মিয়া, করিম জুট মিলের চেয়ারম্যান মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন। প্রবন্ধ পাঠ করেন উন্নত প্রযুক্তিনির্ভর পাট ও পাটবীজ উৎপাদন এবং সম্প্রসারণ প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক (যুগ্ম সচিব) মোঃ লুৎফর রহমান।
মুক্ত আলোচনায় পাট অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক মরিয়ম বেগম, ফরিদপুর চেম্বার অব কমার্সের সাবেক সভাপতি আওলাদ হোসেন বাবর, মাজেদা জুট ইন্ডাস্ট্রিজের ব্যবস্থাপণা পরিচালক সাইফুল ইসলাম, রাজ্জাক জুটমিলের ম্যানেজিং ডিরেক্টর আবুল বাশার, কৃষি সম্প্রাসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক ড. হযরত আলী, বিএডিসির বীজ উৎপাদনের পরিচালক মোঃ জুলফিকার আলী, ডিবিসি টেলিভিশনের ফরিদপুর জেলা প্রতিনিধি সাংবাদিক মাহাবুবুল হোসেন পিকুল, নারী উদ্যোক্তা আলেয়া বেগম, কৃষক নূর মোহাম্মদ ও আনোয়ার হোসেন মিয়া বক্তব্য প্রদান করেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© পদ্মা বাংলা মিডিয়া হাউজের একটি প্রতিষ্ঠান
Design & Developed By JM IT SOLUTION