1. ajkerfaridpur2020@gmail.com : Monirul Islam Titu : Monirul Islam Titu
  2. jmitsolution24@gmail.com : support :
  3. titunews@gmail.com : Monirul Islam Titu : Monirul Islam Titu
সালথায় কুমার নদে অবৈধ বালু উত্তোলন, হুমকীতে সড়ক - আজকের ফরিদপুর
বুধবার, ২৯ জুন ২০২২, ০৯:৫৩ অপরাহ্ন
নোটিশ বোর্ড :
আজকের ফরিদপুর নিউজ পোর্টালে আপনাদের স্বাগতম । করোনার এই মহামারীকালে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখুন। সচেতনে সুস্থ থাকুন।

সালথায় কুমার নদে অবৈধ বালু উত্তোলন, হুমকীতে সড়ক

  • Update Time : রবিবার, ২৯ মে, ২০২২
  • ৮৫ জন পঠিত
মনির মোল্যা, সালথা ব্যুরো :
ফরিদপুরের সালথায় ঐতিহ্যবাহী কুমার নদ থেকে অবৈধ ড্রেজার মেশিন দিয়ে অবাধে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে। এতে নদের দুই পাড়ে থাকা কোটি কোটি ব্যয়ে নির্মাণ করা পাকা সড়ক চরম হুমকির মূখে পড়েছে। যে কোন সময় সড়কটি ভেঙ্গে নদের ভিতর পড়ে যাওয়ার বা সড়কের ফাটল ধরার আশঙ্কা করছেন স্থানীরা।
কুমার নদের দুই পাড়ের বাসিন্দারা অভিযোগ করে বলেন- মাত্র কয়েক মাস আগে কোটি কোটি টাকার খরচ করে নদের দুই পাড়ে থাকা পাকা সড়ক সংস্কার করেন কর্তৃপক্ষ। সেই সড়ক দুটি এখন চরম ঝুঁকিতে। কারণ কয়েক মাস আগে নদটি খনন করেন পানি উন্নয়ন বোর্ড। নদ খননের পর দুই পাড় ধ্বসের আশঙ্কায় রয়েছে এমনিতেই। এরমধ্যে আবার নতুন করে কয়েক দিন ধরে নদের ভিতর অবৈধ ড্রেজার মেশিন বসিয়ে বালু উত্তোলন করে বিক্রি করছেন একটি মহল।
কিছুদিন আগে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়- মাঝারদিয়া ইউয়িনের কুমারপট্টি এলাকায় কুমার নদের ভিতর অবৈধ ড্রেজার মেশিন বসিয়ে বালু উত্তোলন করছেন দুলাল নামে এক ড্রেজার মালিক। তখন তিনি বলেছিলেন- ইউএনওর নির্দেশে বালু উত্তোলন করে সরকারি ঘর নির্মাণের কাজে ব্যবহার করা হচ্ছে। তবে এই ড্রেজার মেশিনটি দিয়ে এখন বালু উত্তোলন বন্ধ রয়েছে।
শুক্রবার সকালে গট্টি ইউনিয়নের জয়ঝাপ গ্রামের ইমাম বাড়ির সামনে গিয়ে দেখা যায়- কুমার নদের মাঝে অবৈধ ড্রেজার মেশিন বালু উত্তোলন করে আশ্রয়ন প্রকল্পের ঘরে দিচ্ছেন খোকন নামে এক ড্রেজার মালিক। বালু উত্তোলনের বিষয় ফোনে তার সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।
উপজেলা প্রকৌশলী তৌহিদুর রহমান বলেন- সড়কের পাশে কুমার নদে যেখানে ড্রেজার মেশিন দিয়ে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে, সেখানে আমি এখনই লোক পাঠাচ্ছি। বালু উত্তোলনের ফলে যদি সড়ক ঝুঁকিপূর্ণ হলে বিষয়টি উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষকে অগবত করবো।
বিষয়টি নিয়ে বক্তব্য নেয়ার জন্য উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোছা: তাছলিমা আকতারকে ফোন করা হলে তিনি ফোন কেটে দেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© পদ্মা বাংলা মিডিয়া হাউজের একটি প্রতিষ্ঠান
Design & Developed By JM IT SOLUTION